চট্টগ্রামে দুদকের মামলায় স্ত্রীসহ সাবেক কাউন্সিলর

অর্জিত সম্পদের হিসেব দাখিল না করায় দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) মামলা হয়েছে স্ত্রীসহ চট্টগ্রামের একজন সাবেক কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. আবু সাঈদ বাদি হয়ে এই মামলা করেন।
দুদক সূত্রে জানা গেছে, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পদ বিবরণী গ্রহণ করার পরও দুদকের কাছে দাখিল না করায় চট্টগ্রামের আলোচিত নগরী লালখান বাজার ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর আবুল ফজল কবির আহমেদ মানিক এবং তারঁ স্ত্রী তাহেরা কবিরের বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করা হয়। দুদক আইনের ২৬ (২) ধারায় এ দম্পতির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। এর আগেও গত বছরের ৯ নভেম্বর সাবেক কাউন্সিলর আবুল ফজল কবির আহমেদ মানিকের বিরুদ্ধে পৃথক চারটি মামলা করে দুদক। ওই মামলায় তিনি ছাড়া আরও তিনজনকে আসামি করা হয়।

দুদকের উপ-পরিচালক ও মামলার বাদি মো আবু সাঈদ বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, সম্পদ বিবরণীয় দাখিল না করায় দুদক আইনের ২৬ (২) ধারায় ‘নন-সাবমিশন’ মামলা দায়ের করা হয়েছে মানিক ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে। কমিশনের নির্দেশক্রমেই মামলাগুলো দায়ের করা হয়।

আরো জানা গেছে, নগরীর লালখান বাজারে মসজিদের দোকান বরাদ্দ দেওয়ার নামে প্রত্যাশীদের কাছ থেকে অর্থ আত্মসাৎ এবং সরকারি পাহাড় দখলে নিয়ে বাড়ি নির্মাণ, পুকুর খনন, ঘর নির্মাণ করে ভাড়া ও পাহাড় বিক্রিসহ সর্বমোট ১ কোটি ৪৭ লাখ ৮৭ হাজার টাকা আত্মসাতের দালিলিক প্রমাণ আনা হয়।

দুদক সূত্রে জানা যায়, প্রাথমিক অনুসন্ধানে মানিকের নামে ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকার স্থাবর ও ১ কোটি ৫ লাখ টাকার অস্থাবর এবং তার স্ত্রী তাহেরা কবিরের নামে ৫৫ লাখ টাকার স্থাবর ও ২৫ লাখ ৭৮ হাজার টাকার অস্থাবর সম্পত্তির তথ্য পায় দুদক। যদিও সম্পদ বিবরণী দাখিল না করায় প্রকৃত সম্পদের তথ্য পায়নি দুদক। তবে কর্মকর্তাদের ধারণা এসব সম্পদের বাইরেও সাবেক এ কাউন্সিলের নামে বেনামে আরও সম্পদ থাকতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.