ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী রকেট

সুমন ভট্টাচার্য, ময়মনসিংহ

রাজপথের ক্ষুদে কর্মী থেকে সম্মুখ যোদ্ধা উত্তম চক্রবর্তী রকেট সকলের দোয়া ও আর্শীবাদ কামনা। আপনাদের সহযোগিতা আমার কাম্য।

ইতিবৃত্ত

পিতাঃ সোমেশ চক্রবর্তী অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা।
মাতাঃ মঞ্জু চক্রবর্তী অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা।
শিক্ষাগত যোগ্যতা বি.কম (পাশ)
স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা
১৪/সি, বড় কালিবাড়ী রোড, ৯নং ওয়ার্ড ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন
বৈবাহিক অবস্থা: বিবাহিত
জাতীয় পরিচয়পত্র নং 820 1183291
ধর্ম : সনাতন
মোবাইল : 01717 448080, 01911119756
ই-মেইল uttamchakroborty001@gmail.com

জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু
সেবা শান্তি প্রগতি
রাজনৈতিক ইতিহাস
সাধারণ সম্পাদক (১৭ নভেম্বর ২০১৫-২৭ জুন ২০২২ ) বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ময়মনসিংহ জেলা শাখা।
নির্বাচিত জি.এস (১৯৯২-৯৩) সরকারী বাণিজ্যিক কলেজ ছাত্র সংসদ।
নির্বাচিত ভি.পি (১৯৯৩-৯৪) সরকারী বাণিজ্যিক কলেজ ছাত্র সংসদ।
সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক (১৯৯৪) বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, সদর উপজেলা শাখা।
সদস্য (১৯৯৫) বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ময়মনসিংহ জেলা শাখা।
প্রচার সম্পাদক (১৯৯৮)
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ময়মনসিংহ জেলা শাখা। সদস্য, আহ্বায়ক কমিটি (২০০১)
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ময়মনসিংহ জেলা শাখা।
যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক (২০০৩) বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ময়মনসিংহ জেলা শাখা।
সদস্য, প্রস্তাবিত (২০০৮) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, ময়মনসিংহ শহর।
সামাজিক কার্যক্রম : বর্তমান
সাধারণ সম্পাদক, ময়মনসিংহ মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদ।
আজীবন সদস্য, ময়মনসিংহ রাইফেলস ক্লাব উপদেষ্টা, বন্ধন সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, কালীবাড়ী এ্যাথলেটিক ক্লাব।
সামাজিক কার্যক্রম সাবেক
প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য সচিব ও প্রথম নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ময়মনসিংহ মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদ সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, চলন্তিকা ক্রীড়া চক্র। করোনা ভাইরাস কোভিট-১৯ মোকাবেলা অসহায়, ভাসমান,হতদরিদ্র দুস্ত পরিবারের মাঝে নেতা কর্মীদের নিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ। বণ্যায় কবলিত পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সহ নিজে কৃষক ধান কেটে ঘরে ঘরে তুলেদেন উত্তম চক্রবর্তী রকেট।

সামান্য কথা
৮ম শ্রেণিতে পড়াকালীন রাজপথের দ্যুতিময় অঙ্গনে হাতেখড়ি। ৯৩ ৯৪ সালে নির্বাচিত ছাত্র সংসদের ভিপি থাকাকালীন ছাত্রদল কর্তৃক মিছিলে হামলা ও হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা। ভোট ও ভাতের অধিকার আদায়ের জন্য অসহযোগ আন্দোলনে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ বাস্তবায়নে রাজপথের সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে পুলিশ কর্তৃক হয়রানী মূলক পদক্ষেপের শিকার। ২০০১ সালে জোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতিটি কর্মসূচী বাস্তবায়নই ছিল প্রধান লক্ষ্য। তৎকালীন সময়ে অপারেশন ক্লিনহার্টে পুলিশী নির্যাতন ও বিএনপি’র মিথ্যা মামলায় হয়রানির শিকার। ২০০৭ সালে ইয়াজ উদ্দিন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা হওয়ায় ময়মনসিংহে প্রচণ্ড আন্দোলন স্বরূপ ছাত্রলীগ কর্তৃক বিএনপি অফিসে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের দরুণ মামলা এবং নির্যাতনের শিকার। ওয়ান ইলেভেনের সময় ১ বছর কারাবরণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.