তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধকে জখম

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধিঃ

বটিয়াঘাটা উপজেলার পল্লীতে এক তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৬০ বছরের বৃদ্ধকে জখম করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সুরখালী ইউনিয়নের ভগবতিপুর গ্রামে।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, জমি চাষ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে শচীন্দ্রনাথ মন্ডল নামে ৬০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধের সাথে বাকবিতণ্ডা হয় স্থানীয় পাওয়ারটিলার চালক শ্বশান সরকারের সাথে। এক পর্যায় পাওয়ারটিলার চালক লোহার হ্যান্ডেল দিয়ে শচীন্দ্রনাথ মন্ডলের মাথায় আঘাত করে। শুধু আঘাত করেই ক্ষান্ত হয়নি সে ওই বৃদ্ধ কে হত্যার উদ্দেশ্যে কাদার ভিতর ঠেসে ধরে। পরে তার আর্তচিৎকারে রক্তাক্ত অবস্থায় এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে বটিয়াঘাটা উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
ভুক্তভোগী শচীন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন, আমি কৃষি কাজ করি। শ্বশান সরকার একজন পাওয়ার টিলার চালক। বিবাদীর সাথে কথা থাকে যে, সময় মত আমার জমি চাষ করে দিবে। কিন্তু বিবাদী আমার জমি সময় মত চাষ না করে ঘুরাতে থাকে। গত ৩ সেপ্টেম্বর শনিবার ১০ টার সময় বটিয়াঘাটা থানাধীন ভগবতীপুর গ্রামস্থ রূপচাঁদ ও গোলকের জমিতে পাওয়ার টিলার দিয়ে জমি চাষ করছিলো। তখন আমি উক্ত জমির মধ্যে গিয়ে বিবাদীর নিকট আমার জমি কখন চাষ করবে বলে জিজ্ঞাসা করি। তখন বিবাদী পাওয়ার টিলার থামিয়ে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। আমি তাকে গালিগালাজ করতে নিষেধ করলে বিবাদী তার পাওয়ার টিলারে থাকা লোহার হ্যান্ডেল নিয়ে আমাকে জীবনে শেষ করার উদ্দেশ্যে আমার মাথায় আঘাত করে। উক্ত লোহার হ্যান্ডেলের আঘাত আমার মাথার বাম পাশে লেগে মারাত্বক ভাবে রক্তাক্ত জখম হয়। আমি রক্তাক্ত জখম অবস্থায় বিলের মধ্যে পড়ে গেলে বিবাদী আমার শ্বাসরোধ করে মেরে ফেলার জন্য বিলের কাদা মাটির সাথে মুখ চেপে ধরে। উক্ত ঘটনা দেখে আশপাশের লোকজন চলে আসলে বিবাদী আমাকে ছেড়ে দিয়ে তার হাতে থাকা লোহার হ্যান্ডেল উচু করে হুমকি দিয়ে বলে আমি যদি ঘটনার বিষয় কাউকে জানাই বা থানায় অভিযোগ করি তাহলে আমাকে সহ আমার পরিবারের সদস্যদের মারপিট করে হত্যা করিবে বলে গালিগালাজ করতে করতে চলে যায়। উপস্থিত লোকজন আমাকে আহত রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ভগবতীপুর গ্রামে নির্মল এ মুদি দোকানে রেখে আমার পরিবারের লোকজনদের সংবাদ দেয়। পরে আমার পরিবারের লোকজন এসে আমাকে চিকিৎসার জন্য ইজি বাইক যোগে বটিয়াঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে।
হাসপাতাল সুত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগীর বর্তমান অবস্থা একটু ভালো। তবে মাথায় আঘাত এর ফলে সেলাই দেওয়া হয়েছে।

উক্ত ঘটনার বিষয় শচীন্দ্রনাথ মন্ডল বাদী হয়ে শশ্বান সরকারের বিরুদ্ধে বটিয়াঘাটা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।
এ ঘটনার বিষয়ে শশ্বান সরকারের স্ত্রীর সাথে কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।
এ বিষয় বটিয়াঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহজালাল বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.