অন্তঃসত্ত্বার ট্রাকচাপায় মৃত্যুঃ পেট ফেটে অলৌকিক ভাবে বেচে গেলো গর্বের শিশু

ডেস্ক রিপোর্ট;

ময়মনসিংহের ত্রিশালে ট্রাকচাপায় এক অন্তঃসত্ত্বা নারীসহ তার স্বামী ও ছয় বছর বয়সী শিশুসন্তানের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় সময় নিহত ওই অন্তঃসত্ত্বা নারীর পেট ফেটে বেরিয়ে আসে তার গর্ভে থাকা সন্তানও। অলৌকিকভাবে সেই শিশুটি বেঁচে আছে।

শনিবার বেলা সোয়া ৩টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশাল কোর্ট বিল্ডিং এলাকায় ওই দুর্ঘটনা ঘটলে মায়ের পেট থেকে বেরিয়ে আসা নবজাতককে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে।

নিহতরা হলেন- ত্রিশাল ইউনিয়নের রায়মনি এলাকার মুস্তাফিজুর রহমান বাবলুর ছেলে ৪২ বছরের জাহাঙ্গীর আলম, তার স্ত্রী ৩২ বছর বয়সী রত্না বেগম ও তাদের ৬ বছর বয়সী মেয়ে সানজিদা আক্তার।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ত্রিশাল থানার এসআই মো. নাজমুল আমিন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তিনি জানান, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা দ্রুতগতির একটি ট্রাক ময়মনসিংহের দিকে আসছিল। বেলা সোয়া ৩টার দিকে ত্রিশালের কোর্ট বিল্ডিং এলাকা পর্যন্ত আসতেই সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা এক দম্পতিসহ তাদের ছয় বছর বয়সী কন্যাশিশুকে চাপা দেয় ট্রাকটি। এতে ঘটনাস্থলেই স্বামী নিহত হন। আর মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকা অন্তঃসত্ত্বা নারীর পেট থেকে বেরিয়ে আসে তার গর্ভে থাকা কন্যাশিশু। শিশুটি ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরই মায়ের মৃত্যু হয়।

এ সময় স্থানীয়রা নিহত দম্পতির আহত সন্তান সানজিদা ও সদ্যোজাত কন্যাকে উদ্ধার করে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কিন্তু হাসপাতালে সানজিদারও মৃত্যু হয়। তবে সদ্যোজাত শিশুটির ডান হাতটি ভেঙে গেলেও এখনও অলৌকিকভাবে বেঁচে আছে সে।

এসআই বলেন, ‘খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে ঘাতক ট্রাকটিকে জব্দ করা সম্ভব হলেও চালক পালিয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.