ভারতে মহানবী(সাঃ)কে অবমাননার প্রতিবাদে বড়লেখা তাওহীদি জনতার বিক্ষোভ মিছিল

শাহরিয়ার শাকিল, (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি

ভারতে হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং উম্মুল মুমিনিন আয়েশা (রাঃ)কে নিয়ে কটূক্তি ও চরম অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে বড়লেখায় তাওহীদি জনতার উদ্যোগে এক বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১০ জুন) জুম্মার নামাজের পর বড়লেখা বড় মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে মিছিল বের হয়। মিসিল ও পরবর্তী পথ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বড়লেখার কৃতি সন্তান মাও মুফতি রুহুল আমিন, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বড়লেখা উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এমাদুল ইসলাম।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মাও আবুল হাসান হাদী, মাও আতিকুর রহমান,মাও মনোওয়ার হোসেন মাহমুদী, শিক্ষক নাজিম উদ্দীন সহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন।

এসময় বক্তারা বলেন,মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহা – মানব,যার শান ও মান আকাশচুম্বী, যার চরিত্র সমগ্র পৃথিবীর সকল মানুষের জন্য আদর্শ,স্বয়ং আল্লাহ তায়ালা তাঁর চরিত্র সম্পর্কে সার্টিফিকেট দিয়েছেন।তাঁর এমন মহান চরিত্রের উপর অবমাননাকর বক্তব্য যে সকল কুলাঙ্গাররা প্রদান করেছে তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন এবং বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রীয় ভাবে নিন্দা প্রকাশ করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।

মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সকল মুসলমানদের প্রাণ ও ঈমান,অনতিবিলম্বে এর উপযুক্ত প্রতিক্রিয়া না আসলে আরও তীব্র বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক আসবে বলে বক্তারা আশ্বস্ত করেছেন,এবং বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা প্রকাশ জন্য আহবান করেন।

বড়লেখা সরকারী কলেজের ইংরেজী প্রভাষক দিগেন্দ্র দেবনাথ মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) কে নিয়ে ফেইসবুকে বাজে মন্তব্য করায় তাওহীদি জনতা ২৪ ঘন্টার মধ্যে কলেজ থেকে বহিষ্কার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য প্রশাসনের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এবং তাঁর পাশাপাশি কিংশু গুষ কে ও আইনের আওতায় আনার জন্য বড়লেখা প্রশাসনের প্রতি আকুল আবেদন জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.