বড়লেখায় ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে ১৯০টি গ্রাম প্লাবিত

শাহরিয়ার শাকিল,বড়লেখা মৌলভীবাজার প্রতিনিধি

মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখায় টানা ভারী বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে হাকালুকি হাওরের পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের ১৯০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে দেড় লাখ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

পৌরশহরের বিভিন্ন বাসা-বাড়ি ও দোকানপাটে পানি উঠেছে। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন মানুষজন। এছাড়া পানিতে চান্দগ্রাম-মৌলভীবাজার আঞ্চলিক মহাসড়ক তলিয়ে যাওয়ায় যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ঢলের পানিতে তলিয়ে গেছে ফসলের মাঠ। ভেসে গেছে পুকুরের মাছ।

এদিকে শনিবার সকাল সাড়ে নয়টায় ভারী বর্ষণে উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউপির আয়েশাবাগ চা বাগানে টিলা ধসে রাজন ব্যুনার্জি (৬০) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় চারজন আহত হয়েছেন। এছাড়া বড়লেখা সদর ইউপির কেছরিগুল গ্রামে টিলা ধসে একজন আহত হয়েছেন। এমনকি উপজেলার মোহাম্মদ নগর কড়িয়া গ্রামে সরর্জোমিন রোববার বিকেলে গিয়ে দেখা গেয়েছে এখান কার রাস্তাতে টিলা মাটি পড়ে রাস্তা প্রায় বন্দ,এমন কি ২/১ জনের বাড়িতে টিলার মাটি পড়েছে।

২১ টি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী।

অন্যদিকে শনিবার মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান বড়লেখার বন্যা পরিস্থিতি সরেজমিন পরিদর্শন করে উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে দুর্যোগ মোকাবেলায় জরুরি সভা করেছেন। এসময় তিনি জনদুর্ভোগ লাগবে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্টদের সুস্পষ্ট নির্দেশনা প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.